Homeআইন ও অপরাধবিনাকারণে পুলিশ হঠাৎ আপনাকে গ্রেফতার করলে আপনি কী করবেন।

বিনাকারণে পুলিশ হঠাৎ আপনাকে গ্রেফতার করলে আপনি কী করবেন।

Police নামটা শুনেই মানুষ ভয় পায়। পুলিশ মানেই গ্রেফতার করবে,পুলিশের কাছে গ্রেফতার আইন ও আইন শৃঙ্খলা রক্ষা করার অধিকার আছে। 

Police নীয়ে আমাদের ভয় পাওয়ার কারন হল আমাদের মধ্যে সজাগতার অভাব। আমরা আমাদের দেশের আইন ও গ্রেফতার আইন ও গ্রেফতার করার নিয়ম,বিনা পরোয়ানায় গ্রেফতার এবিষয়ে কিছুই জানিনা।

Police হল আমাদের রক্ষক। Police এর গঠন করা হয়েছে আমাদের সমাজকে অপরাধ এবং অপরাধী থেকে রক্ষা করার জন্য।

Police হল সমাজে আপনার আমার সবার বন্ধু আইনের রক্ষক। তাই Police নীয়ে মনের মধ্যে থাকা ভুল ধারনা গুলোর অবসান ঘটান।

এবার প্রশ্ন হচ্ছে ধরুন আপনি বাড়ীতে বসে সকাল বেলা চায়ের পেয়ালায় চুমুক দীয়ে খবরের কাগজ পড়ছেন। হঠাৎ শুনলেন আপনার সদর দরজায় কেউ টোকা দিচ্ছে,

আপনি বিরক্ত হয়ে দরজা খুলে দেখলেন দরজায় পুলিস দাঁড়ীয়ে আছে। দাঁড়ীয়ে থাকা পুলিসটি যখন আপনাকে বললেন মিঃ দাস আপনার নামে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে থানায়।

তাই আপনাকে এখনি গ্রেফতার (Arrest)করে নীয়ে যেতে হবে। আপনার মাথাই দুম করে আকাশ ভেঙে পড়ল। কারণ আপনি গ্রেফতার হওয়ার পীছনে কোন কারণ খুঁজে পাচ্ছেন না।

এই পরিস্থিতিতে আপনার কী করনীয় ? আসুন তবে জেনে নেওয়া যাক ভারতীয় দন্ড-সংহীতায় গ্রেফতার আইন অনুযায়ী গ্রেফতার করার নিয়ম কী রয়েছে।

বিনা পরোয়ানায় গ্রেফতার করার জন্য কী আইন আছে। পুলিশ কোন কোন কেসে/ অপরাধে আপনাকে বিনা পরোয়ানায় গ্রেফতার করতে পারবে সেই বিষয়ে।  

গ্রেফতার কী ? গ্রেফতার কাকে বলে


আমরা অনেকেই গ্রেফতার শব্দটি ব্যবহার করি। অনেককে গ্রেফতার হতে দেখি। কিন্তু এখানে আমরা বোঝার চেষ্টা করব গ্রেফতার কী ? বা গ্রেফতার কাকে বলে সেই ব্যাপার।

দেখুন গ্রেফতার কী ? গ্রেফতার কাকে বলে এর উত্তরে বলবো- গ্রেফতার হল একপ্রকার আইনি পক্রিয়া। যার মাধ্যমে পুলিশ কোর্টের আদেশ মত,

গ্রেফতার

শনাক্তকৃত আসামিকে আদালতের কাঠ গোড়ায় জর্জ সাহেবের কাছে পেস করার যে পক্রিয়া,তাকে সাধারণ ভাবে গ্রেফতার বলা হয়ে থাকে।

কিন্তু ভারতীয় সংবিধান গ্রেফতার আইন অনুযায়ী গ্রেফতার করার নিয়ম নির্ধারণ করে দিয়েছেন। পুলিশ চাইলে যে কোনো অপরাধের ভিত্তিতে আপনাকে গ্রেফতার করতে পারেনা।

গ্রেফতার আইন ও গ্রেফতার করার নিয়ম


আপনি যদি কোন অপরাধী না হন। আর কোনো মামলার জন্য যদি পুলিশ আপনাকে গ্রেফতার করতে আসে তাহলে গ্রেফতার আইন অনুসারে,আপনি সত্যতা যাচাই করার জন্য উপযুক্ত প্রমান পুলিশকে দেখাতে পারেন। 

বিনা পরোয়ানায় গ্রেফতার

পুলিসকে উপযুক্ত প্রমান দেখিয়ে বলতে পারেন আপনার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করা হয়েছে। যার কোন ভিত্তি নেই। পুলিস আপনার দেওয়া প্রমান খুঁটীয়ে দেখে সত্য অনুসন্ধান করার চেস্টা করবে।

তাহলে পুলিশ আপনাকে সরাসরি গ্রেফতার করতে পারবেনা। পুলিশ আপনাকে প্রমান অভাবে গ্রেফতার করতে পারবে না।

 তবে আপনাকে পুলিস প্রয়োজনে একাধিক বার থানায় তলব করতে পারে। আপনার বিরুদ্ধে অভিযোগ  মিথ্যা প্রমানিত হলে পুলিস গ্রেফতার আইন অনুযায়ী আপনার বিরুদ্ধে থাকা সমস্ত অভিযোগ খারীজ করে দেবে।

ভারতীয় সংবিধানের CRPC-50(1) ধারায় অভিযুক্তকে গ্রেফতার করার নিয়ম হল- অভিযুক্তকে গ্রেফতার করার আগে গ্রেফতার (Arrest) হওয়ার কারণ জানার অধিকার দেওয়া হয়েছে।

এই ধারা অনুযায়ী অভিযুক্ত ব্যাক্তি পুলিসের কাছে তার গ্রেফতার হওয়ার কারণ জানতে পারেন। তাকে কী জন্য, কোন অপরাধে গ্রেফতার করা হচ্ছে তা পুলিশকে অভিযুক্ত ব্যাক্তিকে জানাতে হবে।

ভারতীয় সংবিধানের CRPC-46(1) ধারায় গ্রেফতার আইন অনুসারে মহিলা অপরাধীকে গ্রেফতার করার নিয়ম হল – মহিলা অপরাধীকে গ্রেফতার করার জন্য মহিলা পুলিস কর্মীর প্রয়োজন।

ভারতীয় সংবিধানের CRPC-46(4) ধারায় গ্রেফতার করার নিয়ম হল- মহিলা এবং শিশু দীকে রাতের বেলা গ্রেফতার (Arrest) করা যাবে না।

 সূর্যাস্ত হওয়ার পর থেকে যতক্ষণ পর্যন্ত সূর্যদয় হচ্ছে ততক্ষণ পর্যন্ত কোন মহিলা এবং শিশু অপরাধীকে পুলিস গ্রেফতার করতে পারবে না।

বিশেষ ক্ষেত্রে Judicial Magistrate এর Permission নীয়ে পুলিস চাইলে রাত্রি বেলা শিশু এবং মহিলা উভয় কে গ্রেফতার করতে পারে।

গ্রেফতার

শিশু দীকে গ্রেফতার (Arrest) করার সময় পুলিস Uniform পড়ে গ্রেফতার করতে পারবেনা। এর জন্য পুলিস কে আলাদা করে Civil Dress পড়তে হবে।

আরও পরুনঃ সন্দীপ মহেশ্বরী জীবনী।

বিনা পরোয়ানায় গ্রেফতার (Without Arrest Warrant)


 বড় অপরাধের ক্ষেত্রে যেমন -খুন,চুরি,ডাকাতি,ধর্ষণ ইত্যাদি জঘর্ন্য অপরাধে পুলিস আসামীকে বিনা পরোয়ানায় গ্রেফতার করতে পারে।

এইধরণের অপরাধের জন্য গ্রেফতার আইন অনুসারে আসামীকে পুলিশ বিনা পরোয়ানায় গ্রেফতার করতে পারে। এর জন্য পুলিশকে কোর্ট থেকে আলাদা করে গ্রেফতারী পরোয়ানার দরকার হয় না। 

ছোট অপরাধ যেমন-জমি-জমা সংক্রান্ত বিবাদ ইত্যাদি ক্ষেত্রে পুলিশ যদি গ্রেফতার করতে আসে,তাহলে পুলিসের কাছে আপনি গ্রেফতারী পরোয়ানা (Arrest Warrant)দেখতে পারেন।

এধরণের ছোটোখাটো অপরাধে পুলিশ বিনা পরোয়ানায় গ্রেফতার (Without Arrest Warrant) করতে পারবে না। পুলিশকে অবশ্যই কোর্ট থেকে গ্রেফতারী পরোয়ানা নিয়ে আসতে হবে। 

গ্রেফতার আইন.

CRPC-41(A) ধারায় গ্রেফতার আইন অনুসারে গ্রেফতার করার আগে, আদালত থেকে অগ্রিম নির্দিষ্ট আসামীর নামে গ্রেফতারী পরোয়ানা বার করা হয়। 

CRPC-41(B) ধারা অনুযায়ী জঘর্ন্য অপরাধ এবং ছোট অপরাধ উভয় ক্ষেত্রেই পুলিস কে Arrest Memo বানাতে হবে। Arrest Memo তে গ্রেফতারের তারিখ/সময় উল্লেখ করতে হবে।

গ্রেফতার করার কারণ লিখতে হবে। কোন থানার পুলিস গ্রেফতার করছে সেই থানা এবং পুলিসের নাম,পুলিস অধিকারীকের পদমর্যাদা সহ উল্লেখ করতে হবে।

পুলিস অধিকারীকে Arrest Memo তে সাক্ষর করতে হবে। আসামীকে কোন জায়গা থেকে গ্রেফতার করা হচ্ছে সেই জায়গার নাম উল্লেখ করতে হবে।

যে জায়গা থেকে আসামীকে গ্রেফতার করা হচ্ছে সেখানকার কোন বিশিষ্ট ব্যাক্তিকে দিয়ে প্রমান স্বরুপ Arrest Memo তে সাক্ষর করাতে হবে। Arrest Memo তে আসামীকে দীয়েও সাক্ষর করাতে হবে।

CRPC-50A ধারায় গ্রেফতার আইন অনুযায়ী অভিযুক্ত ব্যাক্তিকে গ্রেফতার করার সময়,যদি অভিযুক্ত ব্যাক্তির পরিবারের কেউ ঘটনাস্থলে উপস্থিত না থাকে।

তাহলে পুলিশকে অভিযুক্ত ব্যাক্তির পরিবারকে,গ্রেফতারের কারণসহ অভিযুক্তকে কোন থানায় রাখা হয়েছে তার সূচনা ১২ ঘণ্টার মধ্যে দিতে হবে।

CRPC-55A ধারায় গ্রেফতার আইন অনুযায়ী অভিযুক্তকে গ্রেফতার করার পর,অভিযুক্ত ব্যাক্তির স্বাস্থ এবং সুরক্ষার দায়িত্ব পুলিশকে নীতে হবে।

CRPC-56 ধারায় গ্রেফতার আইন অনুযায়ী অভিযুক্ত ব্যাক্তির ২৪ ঘণ্টার মধ্যে Magistrate এর কাছে পেস হওয়ার অধিকার দেওয়া হয়েছে।

CRPC-57 ধারায় গ্রেফতার আইন অনুযায়ী ২৪ ঘন্টার মধ্যে পুলিশের কর্তব্য হল,অভিযুক্ত ব্যাক্তিকে নিকটবর্তী Magistrate আদালতে তুলতে হবে। 

আরো পড়ুন: নতুন ট্রাফিক আইন ও জরিমানার তালিকা। 

পুলিশ হয়রানির স্বীকার হলে কি করবেন


CRPC-156-3 ধারায় গ্রেফতার আইন অনুযায়ী বিনা কারণে,বিনা অপরাধে কোন ব্যাক্তিকে বেআইনি ভাবে গ্রেফতার করে পুলিস লকাপে ভরে রাখে,

গ্রেফতার করার নিয়ম।

এরকম অবস্থায় পুলিস গ্রেফতার করার পর যদি Arrest Memo না ভরে তাহলে, ঐ ব্যাক্তির পরিবার S.P/D.S.P.এর কাছে ঐ পুলিশ আধিকারিক এবং থানার বিরুদ্ধে অভিযোগ করতে পারে।

 S.P/D.S.P পুলিসের অধিকারীকরা অভিযোগের ভিত্তিতে যদি কোন প্রতিক্রীয়া না দেয়,তাহলে Judicial Magistrate এর কাছে অভিযুক্তর পরিবার লিখিত অভিযোগ জানাতে পারে।

CRPC-167 ধারা অনুযায়ী পুলিসের Inquire যদি ২৪ ঘণ্টায় পুরো না হয় তাহলে Judicial Magistrate এর কাছে বিশেষ Permission নীয়ে অভিযুক্ত ব্যাক্তিকে পুলিস ২৪ ঘন্টার বেশি পুলিস হেফাজতে রাখতে পারে।

CRPC-41D ধারা অনুসারে অভিযুক্ত ব্যাক্তির নিজের ইচ্ছে মত উকিল নির্ধারণ করার অধিকার আছে। আর অভিযুক্ত  চাইলে উকিলের সঙ্গে দেখা না করে পুলিসের কোন প্রশ্নের জবাব না দিতেও পারেন।

এর পর পুলিসের কর্তব্য হচ্ছে অভিযুক্ত ব্যাক্তির পরিবারকে সূচিত করা কিংবা অভিযুক্ত ব্যাক্তির পছন্দের উকিল কে নীয়ে আসা। আর এর জন্যা পুলিস অভিযুক্তকে জোর-জবস্তি,মারধর এসব কীছু করতে পারবে না।

CRPC-54 ধারা অনুসারে অভিযুক্ত ব্যাক্তি চাইলে,অভিযুক্ত ব্যাক্তি গ্রেফতার হওয়ার পর তার মেডিক্যাল টেস্ট করাতে পারে।

সংবিধান অভিযুক্ত ব্যাক্তিকে এই অধিকার প্রদান করেছে। সুতারাং পুলিসকে অভিযুক্ত ব্যাক্তির মেডিক্যাল করান একপ্রকার ডিউটির মধ্যে এসে যায়।

তাছাড়া আদালতে পেস হওয়ার আগে অভিযুক্ত ব্যাক্তির আরও একবার মেডিক্যাল করান হয়। এতে অভিযুক্ত ব্যাক্তির পুলিস লকাপের মধ্যে কোন রকমের অত্যাচার কিংবা শরীর অসুস্থ থাকলে তা মেডিকেল রিপোর্টে এসে যায়। 

আরো পড়ুন: Postmortem কে ময়নাতদন্ত বলা হয় কেন। 

পরিশিষ্ট


এই ছিল গ্রেফতার কী ? গ্রেফতার আইন,গ্রেফতার করার নিয়ম ও বিনা পরোয়ানায় গ্রেফতার নিয়ে কিছু সামান্য জ্ঞান। যেগুলো আপনাদের সামনে তুলে ধরা হল।

 ভারতীয় সংবিধান দ্বারা গ্রেফতার সংক্রান্ত কীছু অধিকার। যা সমগ্র ভারতবাসীর জানা উচিত। যদিও এখনকার মানুষ যথেষ্ট সচেতন ও শিক্ষিত।

সকলেই কম বেশি আইন সংক্রান্ত জ্ঞান রাখে। আমাদের উদ্দেশ্য হল সেই সমস্ত মানুষদের কাছে এই সামান্য বেসিক নলেজ টুকু পৌঁছে দেওয়া।

যাতে মানুষ পুলিশকে দেখে ঘাবড়ে না যায়। পুলিশ যে সমাজের একজন বন্ধু ! পুলিশ আমাদের কোনো শত্রু  নয় এই বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি করা।

 

a6cc12293fccf681cf15518ca50544bd?s=117&d=mm&r=g
KRISHNA SAHUhttps://www.sonobangla.com
আমি মনে ও প্রাণে একজন বাঙালি,তাই বাঙালি এবং বাংলা ভাষাকে ভালোবাসি। বাংলা ভাষার মধ্যে দিয়ে আপামর বাঙালির মনে বিভিন্ন ঘটনার বিশ্লেষিত প্রেক্ষাপটের বোধগম্য চিত্র ফুটিয়ে তোলায় আমার লেখনীর মূল উদ্দেশ্য।
RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular