Homeশিক্ষামূলকঅভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের জীবনী (Sushant Singh Rajput Biography in Bengali)

অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের জীবনী (Sushant Singh Rajput Biography in Bengali)

আজকে আমরা জানব ভারতের একজন প্রয়াত তরুণ অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের জীবনী (Sushant Singh Rajput Biography Bangla) সমন্ধে।

বিখ্যাত তরুণ অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত ১৪ ই জুন ২০২০ সালে বোম্বেতে তার ফ্ল্যাটে আত্মহত্যা করেন। অভিনেতার আকস্মিক মৃত্যুতে তোলপাড় হয়ে যায় সারা দুনিয়া।

এখন পর্যন্ত সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর রহস্যকে ঘিরে সুশান্তের অনুগামী ও ভক্তদের মনে কৌতূহলের অন্ত নেই। সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্য যেন একটা ধোঁয়াশায় ভরা।

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু আত্মহত্যা না খুন সেটা নিয়ে মানুষের মনে একটা প্রশ্ন রয়েই গেছে ? সুশান্ত সিং রাজপুত এমন একজন অভিনেতা,যিনি বলিউডে

নিজের প্রতিভা ও পরিশ্রমের দ্বারা নিজের জায়গা করে নিয়েছিলেন। আসুন তাহলে এই প্রয়াত তরুণ অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের জীবনীতে সুশান্ত সিং রাজপুতকে কাছ থেকে জানার চেষ্টা করা যাক।

Table of Contents

সুশান্ত সিং রাজপুতের জীবনী (Sushant Singh Biography)


এবারে আপনাদের সামনে তুলে ধরব সুশান্ত সিং রাজপুতের জীবনীতে সুশান্তের জীবনের বিভিন্ন ঘটনাক্রমকে ছোট ছোট অনুচ্ছেদ আকারে-

০১.সুশান্ত সিং রাজপুতের জন্ম ও শিক্ষা।

০২.সুশান্ত সিং রাজপুতের কর্মজীবন ।

০৩.সুশান্ত সিং রাজপুতের টেলিভিশনে অভিনয়।

০৪.সুশান্ত সিং রাজপুত চলচ্চিত্র জীবন।

০৫.সুশান্ত সিং রাজপুতের ভৌগোলিক বিবরণ।

০৬.সুশান্ত সিং রাজপুত wife ও প্রেমিকা।

০৭.সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর কারন।

সুশান্তের জন্ম ও শিক্ষা


সুশান্ত সিং রাজপুত বিহারের পাটনা শহরে ১৯৮৬ সালের ০৭ ফেব্রুয়ারী মঙ্গল বার জন্ম গ্রহণ করেন। সুশান্ত সিং রাজপুত এর বাবা কৃষ্ণ কুমার সিং বিহার রাজ্যের একজন সরকারী কর্মচারী ছিলেন।

সুশান্ত সিং রাজপুতের পৈতৃক ভিটেমাটি হল বিহারের পূর্ণিয়া জেলার মালডিহা গ্রামে। সুশান্তের ছেলে বেলার অধিকাংশ সময় মালডিহা গ্রামেই কেটেছে।

সুশান্তের মা উষা সিং রাজপুত ছিলেন একজন সাধারণ গৃহকর্তী। ২০০২ সালে সুশান্তের মা মারা যায়। সুশান্তরা চার ভাইবোন। স্বেতা সিং,প্রিয়াঙ্কা সিং ও মিতু সিং।

এর মধ্যে সুশান্তের এক বোন মিতু সিং রাজপুত,বিহারে রাজ্য স্তরের মহিলা টিমের ক্রিকেটার। সুশান্ত তার প্রাথমিক শিক্ষা পাটনার সেন্ট করেন হাই স্কুল থেকে নেন।

২০০২ সালে ব্রেন হামরিং হয়ে সুশান্তের মায়ের মৃত্যু হয়। এরপর সুশান্তের পরিবার নতুন দিল্লী চলে আসে। দিল্লীতে আসার পর সুশান্ত সিং রাজপুত দিল্লীর কুলাচী মডেল স্কুলে ভর্তি হয়।

২০০৩ সালে সুশান্ত DCE প্রবেশিকা পরীক্ষায় সুশান্ত সপ্তম স্থান অধিকার করেন। এরপর তিনি দিল্লীর ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে ভর্তি হয় এবং সেখান থেকে মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ব্র্যাচেলর ডিগ্রী পাস করেন।

সুশান্ত সিং রাজপুতের কর্মজীবন (Sushant Singh Rajput Career)


পড়াশোনার পাশাপাশি সুশান্ত ডান্স প্রোগ্রাম ও থিয়েটারের প্রতি আসক্ত হতে থাকে। এরজন্য সুশান্ত মাঝখানে পড়াশোনা থেকে ইতি টেনে নেয়। তিনি অভিনয়ে কেরিয়ার গড়বে বলে স্থির করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করার সময় সুশান্ত শ্যামক দাবরের ডান্স স্কুলে ভর্তি হয়। সেখানে তার সহ পাঠিদের সাথে সিনেমা নির্মাতা বেরি জনের নাট্য মঞ্চে নাটক দেখতে যেতেন।

বেরি জনের নাটক স্কুলে,মঞ্চ অভিনয় দেখে সুশান্ত অভিনয়ের প্রতি আসক্ত হন। অপরদিকে নৃত্য পরিচালক শ্যামক দাবার সুশান্তের নৃত্যের প্রতি আসক্তি দেখে,

২০০৬ সালে শ্যামক দাবার সুশান্ত সিং রাজপুতকে অস্ট্রেলিয়ায় কমন ওয়েলথ গেম এবং ২০০৫ সালে ৫১ তম ফ্লিম ফেয়ার অ্যাওয়ার্ড ফাংশনে ডান্স পারফর্ম করার সুযোগ করে দেয়।

আরো পড়ুন : সন্দীপ মহেশ্বরীর জীবনী। 

সুশান্ত সিং রাজপুতের টেলিভিশনে অভিনয়


সুশান্ত সিং রাজপুত তার কর্মজীবনের শুরুটা করেন,২০০৮ সালে ষ্টার প্লাস টেলিভিশনে প্রসারিত, ধারাবাহিক শো কিস দেশ মে হ্যায় মেরে দিল টেলিভিশনের রিয়ালিটি শো দিয়ে।

কিন্তু দর্শকদের পছন্দের নিরীখে সুশান্ত পরিচিতি পায় Zee Tv-র,পবিত্র রিস্তা সিরিয়ালের মধ্যে দিয়ে। পবিত্র রিস্তা সিরিয়ালে মানব দেশমুখের চরিত্রে অভিনয় করে,

সিনেমায় সরফরাজ এর চরিত্রে অনুষ্কা শর্মা ও সুশান্ত সিং রাজপুত। 1 1

সুশান্ত সিং রাজপুত মানুষের ঘরে,ঘরে তার নিজের জায়গা করে নেয়। টিভি সিরিয়ালের পাশাপাশি সুশান্ত সিং রাজপুত ২০১০ সালে মস্ত কলন্দর বয়েজ টিম থেকে যারা নাচকে দিখা সিজন-০২ এবং

সনি টিভির রিয়ালিটি শো ঝলক দিখলাজা সিজন-০৪ এর মত ডান্স শো তে নিজেকে তুলে ধরেন। সিরিয়ালে অভিনয় করার সময় সুশান্ত মনস্থির করেন বড় পর্দায় অভিনয় করবেন।

অভিনয় জগতে নিজেকে তুলে ধরার আগে সুশান্ত সিং রাজপুত বিখ্যাত মার্শাল আর্ট ট্রেনার অলন আমিন এর কাছ থেকে ফাইট শেখেন। ২০১০ সালে সুশান্ত টেলিভিশনের ছোট পর্দার অভিনয় ছেড়ে দেয়।

সুশান্ত সিং রাজপুত চলচ্চিত্র জীবন (Sushant Singh Rajput Film Carrier)


এখানে সুশান্ত সিং রাজপুতের জীবনীতে সুশান্তের চলচ্চিত্র জীবনে বিভিন্ন স্ট্রাগলের কাহিনী তুলে ধরা হয়েছে। আপনারা পড়তে থাকুন আসা করি ভালো লাগবে –

২০১০ সালের ডিসেম্বর মাসে সুশান্ত ফ্লিম মেকিং কোর্স করার জন্য বিদেশে চলে যায়। যার জন্য তিনি জনপ্রিয় Zee Tv-র,পবিত্র রিস্তা সিরিয়াল থেকে অভিনয়ে ইতি টানেন।

সুশান্ত সিং রাজপুত চলচ্চিত্র জীবনে পা রাখেন ২০১৩ সালে। সুশান্তের প্রথম সিনেমা অভিষেক কাপুর পরিচালিত কায়-পো-চে,২০১৩ সালের ২২ শে ফেব্রুয়ারী মুক্তি পায়।

চেতন ভগতের নোবেল-০৩ মিস্টেক অফ মাই লাইফ গল্পকে অনুকরণ করে তৈরি,অভিষেক কাপুরের কায় পো চে সিনেমাটি সুশান্তের প্রথম সিনেমাটি  দর্শকদের প্রশংসা কুড়োয়।

সুশান্ত সিং রাজপুত চলচ্চিত্র জীবনে প্রবেশ করেন নিজ পরিশ্রমে। আর পাঁচজন নামি অভিনেতাদের মত সুশান্তের বলিউডে কোনো ফ্যামেলী পরিচিতি ছিলনা।

সুশান্ত তার নিজের অক্লান্ত পরিশ্রমের দ্বারা নিজের জায়গা করে নিয়েছিলেন। যেটা অন্যান্য সেলিব্রিটিদের সন্তানদের জন্য সুলভ সাপেক্ষ হলেও সুশান্তের কাছে সজলভ্য ছিলনা।

সুশান্ত সিং রাজপুতের দ্বিতীয় চলচ্চিত্র হল “শুদ্ধ দেশী রোমান্স”। এই সিনেমায় বাণী কাপুর এবং পরিণীতি চোপড়া অভিনয় করেন। যশ রাজ ফ্লিম দ্বারা সিনেমাটি নির্মাণ করা হয়।

পরিচালক মনীশ শর্মার শুদ্ধ দেশী রোমান্স সিনেমাটির কাহিনীর মূলে রয়েছে নির্মিত লিভ ইন রিলেশনশীপ এর গল্প। সিনেমাটির শুটিং পুরো করা হয় রাজস্থানের জয়পুরে।

২০১৪ সালে পরিচালক রাজকুমার হিরানী নির্মিত ব্লক ব্লাস্টার “পিকে” সিনেমায়,গল্পের মুখ্য চরিত্র আমীর খান এবং অনুষ্কা শর্মার সঙ্গে খন্ড চরিত্রে সরফরাজের ভূমিকায় অভিনয়ের সুযোগ পায়।

পিকে সিনেমাটি দর্শকের মন জয় করে নেয় এবং সেই বছর ২০১৪ সালে বলিউডে উপার্জনের তালিকায় শীর্ষ স্থান লাভ করেছিল।

২০১৫ সালে দিবাকর ব্যানার্জি প্রযোজিত ডিটেকটিভ ব্যোমকেশ বক্সী চরিত্রে অভিনয় করেন। গোয়েন্দা চরিত্রে সুশান্ত সিং এর অসামান্য অভিনয় জনতার মুখে প্রশংসিত হয়।

২০১৬ সালে নীরজ পান্ডে পরিচালিত এম.এস.ধোনী দ্য আনটোল্ড স্টোরী সিনেমাটিতে সুশান্ত সিং রাজপুত মুখ্য ভূমিকায় মহেন্দ্র সিং ধোনীর চরিত্রে অভিনয় করেন।

বক্স অফিসে এম.এস.ধোনী দ্য আনটোল্ড স্টোরী সিনেমাটি সুপারহিট হয়ে যায়। সুশান্ত সিং রাজপুতকে মুখ্য চরিত্রে অভিনয়ের জন্য ফ্লিম ফেয়ার সর্বশ্রেষ্ঠ অভিনেতা পুরুস্কার দেওয়া হয়।

সুশান্ত সিং রাজপুত কৌটিল্য এবং আব্দুল কালাম সহ রবীন্দ্রনাথের বায়োপিকে অভিনয় করার ইচ্ছে প্রকাশ করেছিলেন। কিন্তু যায় হোক নিয়তির পরিহাসে সুশান্তের সেই স্বপ্ন অসম্পূর্ণ হয়েই রয়ে গেল।

এই সিনেমা গুলো ছাড়াও সুশান্ত সিং রাজপুত বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। সুশান্ত সিং রাজপুত অভিনীত চলচ্চিত্র গুলি হল-

ওয়েল কাম টু নিউইয়র্ক (২০১৮),কেদারনাথ (২০১৮),সন্চিড়িয়া (২০১৯),ছিঁছরে (২০১৯), ড্রাইভ (২০১৯),সুশান্ত সিং রাজপুত অভিনীত,

সুশান্ত সিং রাজপুতের শেষ সিনেমা দিলবেচারা সুশান্তের মৃত্যুর পর (২০২০) সালে ডিজিট্যাল প্লাটফ্রম Disney+Hotstar এ মুক্তি পায়।

সিনেমায় সরফরাজ এর চরিত্রে অনুষ্কা শর্মা ও সুশান্ত সিং রাজপুত। 2 1 1

সুশান্ত সিং রাজপুতের ভৌগোলিক বিবরণ


সুশান্ত সিং রাজপুতের গায়ের রং গৌর বর্ণ,লম্বা প্রায় ১৭৮ সেমি/৫ ফুট ১০ ইঞ্চি,শরীরের ওজন ৭৫ কেজি,চোখ এবং চুলের রং কালো। সুশান্তের ধর্ম- হিন্দু,জাতি-ক্ষত্রিয়,রাশি-কুম্ভ রাশি,

শিক্ষাগত যোগ্যতা-টুয়েলভ পাস (সুশান্ত মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং করার সময় মাঝখানে পড়াশোনা ছেড়ে দেন),নাগরিকতা-ভারতীয়,বৈবাহিক স্থিতী-অবিবাহিত,পেশা-অভিনয়।

আরো পড়ুন : মহান গণিতবিদ শ্রীনিবাস রামানুজন এর জীবনী। 

সুশান্ত সিং রাজপুতের কিছু ব্যক্তিগত পছন্দ ও অপছন্দ 


আসুন তাহলে এই অনুচ্ছেদে জেনে নেওয়া যাক সুশান্ত সিং রাজপুতের জীবনীতে সুশান্তের কিছু ব্যক্তিগত পছন্দ ও অপছন্দের ব্যাপারে-

সুশান্ত সিং রাজপুতের পছন্দের খাবার- সুশান্ত ভাতের সঙ্গে রাজমা খেতে ভালোবাসেন। এছাড়াও সুশান্ত আলু পরোটা,চিকেন,শুকনো সামুদ্রিক মাছ এবং

তরল পানীয় হিসাবে লেবু জল ও চা খেতে পছন্দ করতেন। সুশান্ত সিং রাজপুতের পছন্দের অভিনেতা হল-জেমস ডিন,রায়ান গোসলিং,

রিট্স,শারুখ খান,ডেনিয়েল ডে-লুইস এবং নওয়াজুদ্দিন সিদ্দিকী। সুশান্তের পছন্দের পরিচালক- সঞ্জয় লীলা বানশালী,রাজ কুমার হিরানী ও আনন্দ গান্ধী।

পছন্দের ক্রিকেটার-সৌরভ গাঙ্গুলী। পছন্দের খেলা- ক্রিকেট,ফুটবল এবং টেবিল টেনিস। সুশান্তের পছন্দের রং-কালো,পছন্দের জায়গা-নিউজিল্যান্ড।

সুশান্ত সিং রাজপুত বাদ ও বিবাদ


এই অনুচ্ছেদে আমরা সুশান্ত সিং রাজপুতের জীবনীতে সুশান্তের জীবনের কিছু বাদ ও বিবাদের কথা আপনাদিকে জনাব –

২০১৫ সালে সুশান্তের প্রাক্তন প্রেমিকা,অঙ্কিতা লখন্ডে মুম্বায়ের অন্ধেরিতে যশ রাজ ষ্টুডিওর বাইরে জনসম্মুখে সুশান্তকে সপাটে গালে থাপ্পড় মারে। ঘটনার তন্দন্তে দেখা যায় সুশান্তকে থাপ্পড় মারার আগে,

অঙ্কিতা লখন্ডে সুশান্তকে সেলফোনে ধন্যবাদ জানিয়ে ম্যাসেজ করেছিল। এর পরে পরে ২০১৫ সালে সুশান্তের সঙ্গে অঙ্কিতা লখণ্ডের চুপিসারে বিয়ে করার ভুয়ো খবর সামনে আসে।

২০১৮ সালে সুশান্ত তার অনুগামী ভক্তদের উদ্দেশ্যে গালিগালাজ করে। আসলে ঘটনা ঘটেছিল এরকম,সুশান্ত যখন বান্দার ফ্ল্যাটে ছিলেন,

তখন তার ভক্তরা সুশান্তের ফ্ল্যাটে আসার জন্য সুশান্তের চৌকিদারকে মারধর করেন। এরপরে সুশান্ত তাদের উদ্দ্যশ্যে ভৎসনা ও গালি গালাজ করেন।

সুশান্ত সিং রাজপুতের প্রাপ্ত পুরুস্কার (Sushant Singh Rajput Award)


সুশান্ত সিং রাজপুত খুব অল্পসময়ের মধ্যে বলিউডে নিজের জায়গা করে নিয়েছিলেন। সুশান্ত সিং রাজপুতের ছোট্ট বলিউড সফরে অনেকগুলি পুরুস্কার নিজের নামে করেছেন।

২০০৯ সালে সুশান্তকে মোস্ট পপুলার এক্টর পুরুষ বিভাগে ইন্ডিয়ান টেলিভিশন অ্যাওয়ার্ড দিয়ে সম্মানিত করা হয় এবং ঐ একই সালে ইন্ডিয়ান টেলিভিশন একাডেমি অ্যাওয়ার্ড সুশান্ত জিতে নেন।

২০১০ সালে সুশান্তকে পবিত্র রিস্তা সিরিয়ালের জন্য বেস্ট টেলিভিশন এক্টর (মেল) বিভাগে  বিগ ষ্টার এন্টার্টমেন্ট অ্যাওয়ার্ড দিয়ে সম্মানিত করা হয়।

২০১১ সালে সুশান্তকে ফেভারেট এক্টর কালাকার অ্যাওয়ার্ড, ২০১৪ সালে জি সিনি অ্যাওয়ার্ড,২০১৭ সালও ইন্টারন্যাশনাল ইন্ডিয়ান ফ্লিম একাডেমি অ্যাওয়ার্ড দিয়ে সম্মানিত করা হয়।

আরো পড়ুন: অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের জীবনী। 

সুশান্ত সিং রাজপুত wife, girlfried


সুশান্ত সিং রাজপুতের জীবনে অনেক প্রেম এসেছে ,কিন্তু কোনো প্রেম দীর্ঘস্থায়ী হয়নি। বরঞ্চ সুশান্ত সিং রাজপুতের জীবনীতে সুশান্তের জীবনে আসা প্রেমকেই অনেকে আত্মহত্যার কারণ বলে মনে করেন।

সুশান্ত সিং রাজপুত প্রথম তার প্রেমিকা অঙ্কিতা লখন্ডের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়ায় Zee Tv-র,পবিত্র রিস্তা সিরিয়ালে অঙ্কিতা লখণ্ডের বিপরীতে অভিনয় করার সময় থেকে।

অঙ্কিতা লখন্ডে এবং সুশান্ত সিং রাজপুতের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক বহু দিন যাবৎ টিকে ছিল। পরে লোকমুখে সুশান্তের সঙ্গে কৃতী সোনেনর সঙ্গে প্রেমের কানাঘুষো শোনা যায়।

সিনেমায় সরফরাজ এর চরিত্রে অনুষ্কা শর্মা ও সুশান্ত সিং রাজপুত। 3

সর্বশেষ সুশান্তের সঙ্গে রিয়া চক্রবর্তীর রিলেশনের কথা সামনে আসে। সুশান্তের মৃত্যুর পর রিয়া চক্রবর্তীকে পুলিশ জেরা করে,যার জন্য রিয়াকে পুলিশ কাস্টোডিতেও রাখা হয়।

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু কিভাবে হয় (Cause of Death Sushant Singh Rajput)


সুশান্ত সিং রাজপুতের জীবনীতে মেন ট্রাজেডি বা ক্লাইমেক্স হল সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু ও মৃত্যুর কারণ যেটা প্রথমেই সবার মনে জাগা বিরাট একটা শুন্যস্থান বলতে পারেন।

সুশান্ত সিং রাজপুত মহারাষ্ট্রের মুম্বাইয়ে নিজের ফ্ল্যাটে ২০২০ সালের ১৪ ই জুন, নিজের গলায় ফাঁসি লাগিয়ে  আত্মহত্যা করেন।

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত দেহ আবিস্কার করেন সুশান্তের ঘরের একজন চাকর। সুশান্তের চাকর সুশান্তের বেড রুমে পৌঁছালে সুশান্তের মরদেহ ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায়।

এরপর সুশান্তের আত্মহত্যার সূচনা মুম্বই পুলিশকে দেওয়া হয়, মুম্বই পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাস উদ্ধার করে পোস্টমর্টেম এর জন্য পাঠিয়ে দেয় ফরেন্সিক রিপোর্টের জন্য।

সুশান্তের মৃত্যুকে প্রথমে আত্মহত্যা বলে মনে করা হয়। কিন্তু সুশান্তের পরিবারের মতানুযায়ী সুশান্তের মৃত্যু আত্মহত্যা নয়, সুশান্তের মৃত্যু হল আসলে খুন।

সুশান্তের মৃত্যুর কারণ খুঁজে বার করার জন্য সুশান্তের পরিবার সিবিআই ইনকুয়ারি করার জন্য সরকারের কাছে আবেদন জানায়।

সুশান্তের পরিবার সুশান্তের মৃত্যুর জন্য সুশান্তের প্রাক্তন প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীকে দোষী মনে করেন। আর তার  জন্য রিয়া চক্রবর্তীকে পুলিশ এবং সিবিআই যৌথভাবে জেরা করে।

পুলিশ তদন্তে সামনে আসে সুশান্ত সিং এবং রিয়া চক্রবর্তীর ভাই সৌভিক চক্রবর্তী দুজনে ড্র্যাগ /মাদক দ্রব্য সেবন করতেন।

পরে এই ঘটনার সত্যতা যাচাই করার জন্য পুলিশ শেষ পর্যন্ত সৌভিক চক্রবর্তী এবং রিয়া চক্রবর্তীর নার্কো টেস্ট  করেন।

এই ঘটনায় সৌভিক চক্রবর্তী সহ মোট ১১ জন অপরাধীকে মুম্বই পুলিশ গ্রেফতার করেন। পরে সুশান্ত সিং মামলায় রিয়া চক্রবর্তীকে মুম্বাই হাইকোর্ট ০৮ অক্টবর জামিন দেয়।

সুশান্ত সিং রাজপুতের আত্মহত্যার কারণ বা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর কারন কি 


সুশান্ত সিং রাজপুতের আত্মহত্যার কারণ হিসাবে সুশান্তের মানসিক অবসাদ সুশান্তের মৃত্যুর কারণ হিসাবে সামনে আসে। সুশান্ত সিং বেশ কয়েকদিন ধরেই মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন।

আর এর জন্য সুশান্ত নিয়মকরে ওষুধ খেতেন। কিন্তু সুশান্তের ভক্তেদের মতে সুশান্তের আত্মহত্যার পিছনে বলিউডের মধ্যে চলা ভাই বন্ধু ব্যবহারই দায়ী।

তাদের মতে বলিউডের এক অংশ সুশান্তের কাজে বাধার সৃষ্টি করছিল। একথা স্বীকার করেছেন কঙ্গনা রানাওয়াত সহ বলিউডের এক অংশ।

আপনারা জানলে অবাক হবেন সুশান্তের কাছে বাজীরাও মস্তানি,পদ্মাবৎ এর মত সেরা ফ্লিম গুলো সাইন করার প্রস্তাব এসেছিল।

কিন্তু শেখর কাপুরের সিনেমা  “পানি” ছবির শুটিংয়ের জন্য তিনি তার হাতের সামনে আসা আরো সমস্ত সিনেমাগুলিকে ইগনোর করে দিয়েছিলেন।

যাইহোক সুশান্তের মৃত্যু আত্মহত্যা না খুন সেই তদন্ত পুলিশ করছে। কিন্তু সুশান্ত ভক্তদের কাছে তরুণ অভিনেতার আকস্মিক প্রয়াণ মেনে নেওয়া একটু কষ্টদায়ক বটে।

সুশান্ত সিং রাজপুতের জীবনের কিছু রুচিপূর্ণ জানকারী


এই অনুচ্ছেদে আমরা আপনাদের সামনে তুলে ধরব সুশান্ত সিং রাজপুতের জীবনীতে সুশান্তের জীবনের কিছু রুচিপূর্ণ তথ্য,যেগুলো আপনাদের সবার জানা দরকার –

সুশান্ত সিং রাজপুতের টিভিতে প্রথম বিজ্ঞাপন ছিল নেসলে মঞ্চ চকলেটের। সুশান্তের এই চকলেটের বিজ্ঞাপনটি টিভিতে যথেষ্ট লোকপ্রিয় হয়েছিল।

২০১৫ সালে নেসলে মঞ্চ চকলেটের বিজ্ঞাপনটিকে নতুন একটি ফ্লেভারের সঙ্গে অ্যাড করে দ্বিতীয় বারের জন্য প্রচার করা হয়।

সুশান্তের বড় জামাইবাবু ওম প্রকাশ সিং হরিয়ানা পুলিশের ডিজিপিও। সুশান্তের কাকার ছেলে নীরজ কুমার বাবুল বিজেপির একজন বিধায়ক।

সুশান্ত সিং রাজপুত লাক্সারী গাড়ীর সৌখিন ছিলেন। সুশান্তের পছন্দের লাক্সারী গাড়ী ছিল বুগাটি ব্রায়ান এবং বি.এম.ডব্লিউ বাইকের সৌখিন ছিলেন।

সুশান্ত সিং রাজপুত তিনটি স্বপ্ন নিয়ে মুম্বাই এসেছিলেন-১ম যশ রাজ ফ্লিমে কাজ করা,২য় পেপসির বিজ্ঞাপনে কাজকরা এবং ৩য় স্বপ্ন ছিল ফ্লিম ফেয়ারের মাগ্জিনে নিজেরে ছবি ছাপানো।

সুশান্ত সিং রাজপুতের তিনটি স্বপ্নই সত্যি হয়েছিল। ২০১৮ সালে সুশান্ত তার পাইলট হওয়ার স্বপ্ন পূরণ করেন। যদিও তিনি নিজে একজন লাইসেন্স প্রাপ্ত পাইলট হতে পারেননি।

কিন্তু তিনি জাহাজ উড়ানো শেখার জন্য নিজে বোয়িং ৭৩৭ ফিস্কড বেশ ফ্লাইট সিমুলেটর কিনে নেন। সুশান্ত সিং হলেন প্রথম ভারতীয় যিনি চাঁদের মাটিতে Mare Muscoviense নামে প্লট কিনেছিলেন।

সুশান্ত ছোটো বেলা থেকেই চন্দ্রলোক এবং সৌরমণ্ডল নিয়ে জানার জন্য উদগ্রীব ছিলেন। সুশান্ত শনির বলয় দেখার জন্য পৃথিবীর দামী দূরবীক্ষণ যন্ত্রের মধ্যে অন্যতম Meade ১৪ X ৬০০ কেনেন।

সুশান্তের মহাকাশের প্রতি মনে থাকা অনবরত কৌতূহল ও জিজ্ঞাসা ছিল প্রবল। সুশান্ত সিং এর জন্য নাসা থেকে ২০২৪ মহাকাশ মিশনের জন্য একটি ছোট প্রশিক্ষণ পর্যন্ত গ্রহণ করেন।

FAQ-


০১.সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর কারণ কী ?                                                                           উঃ- সুশান্ত সিং রাজপুত প্রায় ০৬ মাস ধরে মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন। যার জন্য তিনি আত্মহত্যার পথ      অবলম্বন করেন।

০২.সুশান্ত সিং রাজপুত wife / Girlfriend এর নাম কি ?                                                         উঃ – সুশান্ত সিং এর প্রথম প্রেমিকা অঙ্কিতা লখন্ডে ,যার সঙ্গে সুশান্তের দীর্ঘদিন লিভ ইন রিলেশনশিপ ছিল। তারপর কিছুদিন অভিনেত্রী কৃতি সেনন এর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কের কথা সোনা যায়।

এরপর সুশান্তের নাম অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তীর সঙ্গে জড়িয়ে পড়ে। তার জন্য সুশান্ত সিং আত্মহত্যা মামলায় বেশ কয়েদিন রিয়া চক্রবর্তীকে পুলিশি হেফাজতে থাকতে পর্যন্ত হয়েছিল।

০৩.সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু কিভাবে হয়েছিল ?                                                                 উঃ- সুশান্ত সিং রাজপুত গলায় ফাঁসি লাগিয়ে ২০২০ সালের ১৪ ই জুন মুম্বাইয়ে নিজের ফ্ল্যাটে আত্মহত্যা করেন।

০৪.সুশান্ত সিং রাজপুত মদ্যপান করতেন ?                                                                             উঃ- হ্যাঁ সুশান্ত সিং রাজপুত মদ্যপান এবং ধূমপান দুটোই করতেন।

 

 

a6cc12293fccf681cf15518ca50544bd?s=117&d=mm&r=g
KRISHNA SAHUhttps://www.sonobangla.com
আমি মনে ও প্রাণে একজন বাঙালি,তাই বাঙালি এবং বাংলা ভাষাকে ভালোবাসি। বাংলা ভাষার মধ্যে দিয়ে আপামর বাঙালির মনে বিভিন্ন ঘটনার বিশ্লেষিত প্রেক্ষাপটের বোধগম্য চিত্র ফুটিয়ে তোলায় আমার লেখনীর মূল উদ্দেশ্য।
RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular