Homeশিক্ষামূলকCar No Plate/বিভিন্ন ধরনের নং প্লেট

Car No Plate/বিভিন্ন ধরনের নং প্লেট

আজকে পাঠকগণ আমাদের বিষয় হল ভারতবর্ষের Car No Plate নিয়ে। আমার মত  আপনারাও হয়ত রাস্তাঘাটে চলার সময় গাড়ীর পিছনে  Colour background Car No Plate লক্ষ করেছেন। তাদের কোনটা হয়ত লাল রঙের ব্যাক গ্রাউন্ডে লেখা, আবার কোনটা সাদা,কাল,আরও আছে ইত্যাদি। আর তা নীয়ে হয়ত মনে অনেক কৌতূহল ও লুকীয়ে আছে আপনাদের মনের মধ্যে। আসুন তাহলে একে একে আপনাদের মনের কৌতূহল আজ দূর করা যাক Colour Car No Plate সমন্ধে।

মূলত আজ থেকে এক বছর আগে মানে ০১ এপ্রিল সাল ২০১৯ সালের আগে যারা গাড়ি কিনেছিল সেই সমস্ত গাড়ির ক্রেতা দীকে, আর.টি.ও. থেকে মাস খানেকের মধ্যে Car No Plate বা নং দিয়ে দেওয়া হত। আর পরে সেটা কোন দোকান থেকে ফেন্সী নং ডিজাইন করে নিজের নিজের গাড়ীর আগে ও পিছে Car No Plate লাগিয়ে নিত, যে যার মত। কিন্তু আগের বছর এপ্রিল ২০১৯ এর পর থেকে সরকারী নিয়ম অনুযায়ী গাড়ীতে HSRP Car No Plate লাগানোর নিয়ম করে দেওয়া হয়। তাই আমরা এই ট্রপিকে জানব HSRP Car No Plate সমন্ধে এবং নিজের গাড়ীতে কীভাবে V.I.P.নং প্লেট লাগানো যায় সে ব্যাপারে। তাছাড়াও ভারতে ব্যাবহার করা হয় এমন বিভিন্ন রঙের ব্যাক গ্রাউন্ডে লেখা নং প্লেট এর বিষয়ে।

#.V.I.P. Car No Plate কী ভাবে বুক করবেনঃ-

পাঠকগণ আপনার অনেক বিজনেস ম্যানদের দামি গাড়ী দেখে হয়ত লক্ষ করেছেন তাদের গাড়ীতে থাকা Car No Plate এর নং কোড Unique সংখার। যেমন-WB-12 P-0400.বন্ধুরা আপনারাও কিন্তু চাইলে এরকম Unique-সংখ্যার নং প্লেট আপনার বাহনে লাগাতে পারেন। কিন্তু এর জন্য আপনাকে আলদা করে গাঁটের টাকা খরচ করতে হবে। আর এই টাকার পরিমান ২৫-৩০,০০০ টাকার মত।

car no plate

আর এই V.I.P.নং বুক করার জন্য প্রথমে যেটা আপনাকে করতে হবে সেটা হল আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের কোন বাউজারে Google -এ গিয়ে paribhan.gov.in click hereএ সার্চ করতে হবে। তারপর Online service উইন্ডো খোলার পর Fencey No plate অপশন টিতে গিয়ে User ID এবং Pasword বানিয়ে login করুণ। তারপর নতুন একটা উইন্ড খুলবে সেখানে গিয়ে No selection অপশন এ গিয়ে RTO vechicle catagory select করার পরে vechicle sereise দিয়ে No choice করার পর Owner shipe ফর্ম টা ফিলাপ করার পর Net banking option এ গিয়ে আপনি টাকা জমা দিন। তাহলেই আপনি আপনার পছন্দের নং পেয়ে যাবেন। সেটা RTO টে গীয়ে জমা করুন।

 

০১ এপ্রিল ২০১৯ সালের পর থেকে মোটর বাহন আর.টি.ও.নিয়মে রদ-বদল হয়।পাঠকগন ০১ এপ্রিল ২০১৯ সাল থেকে গাড়ীর নং প্লেটে হিঁসাবে HSRP নং প্লেট ব্যাবহার ব্যাধতামূলক।

#.HSRP-No Plate:-

car no plate

বন্ধুরা আগেই বলেছি সাল ২০১৯ -এপ্রিল মাসের আগে পর্যন্ত গ্রাহক/ক্রেতা তাঁর পছন্দ মত ডিজাইন দীয়ে যে যার মত গাড়ীতে Car No Plate ব্যাবহার করত। আর তাতে সমস্যা কী হত, রান অ্যান্ড হিটা এবং গাড়ি চুরির মত  মত কেশে অপরাধী সহজেই তার Car No Plate পাল্টে ফেলতে পারত। তাই অপরাধ আর আর অপরাধীকে দমন করা পুলিসের কাছে বেশ মুসকিল ছিল।আর এই সব সমস্যাকে দেখে সুপ্রিম কোটের নির্দেশে আর.টি.ও. এপ্রিল ২০১৯- এর পর থেকে ২ চাকা,৩ চাকা,৪ চাকা সহ সমস্ত বাহনে এক বিশেষ সুরক্ষিত  নং প্লেট দেওয়ার ব্যাবস্থা করে, যা High Security Registration Plate নামে পরিচিত।যখন কোন ক্রেতা, কোন ডিলারের  কাছে  নতুন গাড়ি কিনবে, তখন গাড়ীর মূল্যের সাথে Car No Plate এর একটা বিশেষ মূল্য নেওয়া হয়ে থাকে, যা ২ চাকার ক্ষেত্রে ৬০ টাকা,আর ০২ চাকা তাঁর উর্ধে ২৩০ টাকার মত। এই নং প্লেটের বিশেষত্ব এই যে নতুন নং প্লেটের বাঁ দীকে উপরে প্রথমে থাকে, অশোক চক্রের ক্রোমিয়াম বেস হলগ্রাম এবং তার নিচে থাকে দেশের কোড IND তার নীচে থাকে PIN যাকে আমরা Permanent Identification No বলে জানি।আর এই পিন নং এর মধ্যে থাকে ডিলার কোড ,চাসীস নং,এবং আর.টি.ও. নং। যাথেকে সহজেই ডিলারের নাম,গাড়ীর চাসীস নং থেকে গাড়ীর মালিক এবং আর.টি.ও. কোড থেকে গাড়ীটি কোন আর.টি.ও. এর অধীনে রেজিস্টার, সহজেই বোঝা যায়। এর পর বড় হরফে যেটা লেখা থাকে সেটা হল গাড়ীর আসল রেজিস্ট্রেশন নং। আর এই Car No Plate  সাধারণত তৈরী হয় আলমুনিয়ামের পাত দীয়ে। যা আসলে হয় খুব নরম। আর এটা গাড়ীতে আঁটা হয় বিশেষ পিন দীয়ে , কোন স্কু-র সাহাজ্যে নয়। আর এটা কে খোলার চেষ্টা করলে আপনার Car No Plate টী সহজেই বেঁকে যেতে পারে। যদিও আর.টি.ও. এর মতে এই Car No Plate কে ১৫০ থেকে ২০০ মিটার দুর থেকে সহজেই  পড়তে পারা যায়। আর আর.টি.ও. থেকে এই Car No Plate এর উপর ১৫ বছরের গ্যরেন্টি প্রদান করা হয়ে থাকে।

   #.NOTE:-০১ এপ্রিল ২০১৯ সালের পর Central vehicle act অনুযায়ি rule-1989 section-50d  অনুসারে গাড়িতে Fancy Car No Plate ব্যাবহার কর যাবে নাCar No Plate  ইংরেজি  ছাড়া অন্য কোন আঞ্চলিক ভাঁষায় লেখা যাবে না। গাড়ীতে আর.টি.ও. থেকে দেওয়া HSRP Car No Plate-ই ব্যাবহার করতে হবে। আর যাদের গাড়ীতে পুরনো Car No Plate আছে তারা আর.টি.ও.-র কাছ থেকে আবেদন করে নতুন Car No Plate  পেয়ে যাবে। বন্ধুরা তাই আপনাদের কাছে আমার এটাই নিবেদন যারা গাড়ীতে পুরনো কিংবা ফেন্সি নং প্লেট ব্যাবহার করছেন তারা দেরি না করে অবশ্যই নতুন HSRP Car No Plateলাগিয়ে নিন। তা নাহলে সরকার এই নীয়ে কড়া পদক্ষেপ নিলে, আপনাদের কাছে পুলিস আইনত মোটা অঙ্কের জরিমানা লাগাতে পারে।

আসুন তাহলে এবার  আমারা জেনে নিই বিভিন্ন রঙের  ব্যাক গ্রাউন্ডে লেখা Colour Car No Plate সর্ম্পকে। মুলত আমরা ৬ ধরনের Car No Plateদেখতে পাই। সেগুলি হল যথাক্রমে——–

১.সাদা ব্যাক গ্রাউন্ডে কালো কালিতে লেখা Car No Plate:-

এই ধরনের Car No Plate সাধারণ ভাবে আর.টি.ও. ব্যাক্তিগত বাহনের জন্য ইসু করে থাকে। আর এই সাদা ব্যাক গাউন্ডে লেখা নম্বরের বাহন আপনি ব্যাক্তিগত যাতায়াতের জন্যই ব্যাবহার করতে পারবেন। কোন ব্যাবসায়িক ভাবে ব্যাবহারের জন্য এই বাহনকে ব্যাবহার করা যাবে না। আর এই ধরনের বাহনে এক রাজ্য থেকে অন্য রাজ্যে যাওয়ার জন্য টোল প্লাজাই কোন রকম ট্যক্স দেওয়ার প্রয়োজন হয় না। এই ধরনের বাহন ক্রয় করার সময় গ্রাহকের কাছ থেকে সরকারকে   গাড়ীর দাম অনুসারে অন টাইম ট্যাক্স হিঁসাবে অতিরিক্ত টাকা নেয়।

২.হলুদ ব্যাক গ্রাউন্ডে কালো কালিতে লেখা Car No Plate:-

হলুদ ব্যাক গ্রাউন্ডের Car No Plate  দেওয়া হয় ব্যাবসায়িক বাহনের জন্য। আর এই বাহনের ব্যাবসায়িক পারমিট নিতে হয় আলাদাভাবে আর.টি.ও. এর কাছ থেকে। আর এই পারমিট ছাড়া এই বাহন ব্যাবহার করা নিষেধ। এই ধরনের Car No Plate সাধারণ ভাবে আপনারা দেখতে পাবেন ট্রাক, বাস ছাড়াও বিভিন্ন মাল বাহন কারি গাড়িতে।  বিশেষ করে ট্রাক বা লরি তে চোখে পরে।

৩.ব্লাক বা কালো ব্যাক গ্রাউন্ডে হলুদ কালিতে লেখা Car No Plate:-

এই ধরনের Colour Car No Plate দেওয়া হয় রেন্ট/ভাড়া দেওয়া গাড়ীর জন্য। উদারহণ হিঁসাবে ওলা, উবার, ট্যাক্সি,বিভিন্ন ব্যাবসায়িক সংস্থাকে। উদারহন হিসাবে ধরা যেতেই পারে, মনে করুন আপনি যদি একটা অটো রিক্সা কিনেন আর সেই অটো টাকে যদি আপনি কাউকে ভাড়ার গাড়ি হিসাবে চালাতে দেন তাহলে অটো রিক্সা টিকে আর.টি.ও. ব্লাক বা কালো ব্যাক গ্রাউন্ডে ছাপানো Car No Plate দেবে।

৪.রেড বা লাল ব্যাক গ্রাউন্ডে লেখা Car No Plate:-

এই ধরনে Car No Plate হল সাময়িক নং প্লেট। এই ধরনের নং প্লেট সাধারণভাবে গাড়ি যখন কারখানায় প্রস্তূত হয়ে ডীলারের কাছে যখন ডিলেভারী বা পৌঁছান হয়, তখন কম্পানি থেকেই এক বিশেষ নং লাল ব্যাক গ্রাউন্ডে  সাদা কালিতে লেখা নং প্লেট দেওয়া হয়। আর গাড়ি বিক্রি হওয়ার পর গ্রাহকের কাছে এই নং প্লেটের  শুধু এক মাসের বৈধতা থাকে। এবং পরে গাড়িটি আর.টি.ও. এর কাছে রেজিস্টার হওয়ার পর নতুন HSRP Car No Plate দেওয়া হয়ে থাকে।

৫.নীল ব্যাক গ্রাউন্ডে লেখা  No Plate:-

এই নীল রঙের ব্যাক গ্রাউন্ডে লেখা নং প্লেট ব্যাবহার হয় বিশেষ বিশেষ গাড়িতে। এই ধরনের গাড়ীর নং প্লেট দেখলেই  বুঝতে হবে, এটা কোন সাধারণ লোকের গাড়ি নয়। এটা কোন বিশেষ ব্যাক্তির গাড়ি। যিনি ভারত দেশের নাগরিক নন। ঐ গাড়িটীর মালিক কোন বিদেশি রাস্ট্রদূত। কিংবা হয়ত ওটা U.N. missionএর গাড়িতে নীল রঙের নং প্লেট লক্ষ করা যায়।

৬.সবুজ ব্যাক গ্রাউন্ডে লেখা  No Plate :-

এই ধরনের নং প্লেটের ব্যাবহার সরকার ইলেকট্রিক বাহনের ক্ষেত্রে করে থাকেন। যদিও ভারতে সেভাবে ইলেকট্রিক গাড়ীর প্রচলন সেভাবে লক্ষ করা যায় না। কারন হিসাবে বলা যেতেই পারে এখনও সেভাবে আমাদের দেশে ইলেকট্রিক বাহনের পরিকাঠামো তৈরী হয়নি। কিন্ত সরকার যথা সম্ভব প্রয়াস চালাচ্ছে। সরকারের লক্ষ ২০৩০ সালে ভারতের রাস্তায় ইলেকট্রিক গাড়ি দৌড়াবে। সরকারের এই ডাকে সারা দীয়ে বিভিন্ন দেশি মোটর নির্মান সংস্থা যেমন- টাটা, মহিন্দ্রা -র মত কম্পানি এগিয়ে এসছে।

৭. V.V.I.P.- No Plate in India:-

difrent type no plate india

এই ধরনের নং প্লেট সাধারণত আমাদের দেশের দু-জন ব্যাক্তির গাড়িতে দেখতে পায়। একজন হলেন মাননীয় রাষ্টপতি এবং  অন্য ব্যাক্তিটি হলেন মাননীয় রাজ্যপাল। এই দু-জন ব্যাক্তির গাড়িতে কোন নং প্লেট থাকে না। এনাদের গাড়ীতে নং প্লেট হিসাবে যেটা থাকে সেটা হল-লাল ব্যাক গ্রাউন্ডের উপর অশোক স্তম্ভ। যা আমাদের দেশের রাষ্টিয় প্রতিক চিহ্ন।

৮.Military Car No Plate:

এই ধরনের নং প্লেট মিলেটারি বাহনে দেখা যায়। এখানে ↑03D153874W টি হল কোন মিলেটারি গাড়ীর নং। এখানে ↑03 মানে হল গাড়িটি ২০০৩ সালে তৈরি হয়েছে। আর D বলতে গাড়িটিকে ডিজেল ক্যাটেগারির গাড়ি যা মুলত ডিজেল দিয়ে চলে আর পরের নং গুলি হল গাড়ীর রেজিস্ট্রেশনের বিবরণ।

এত ছিল আমাদের দেশের গাড়ীর নং প্লেট নীয়ে সামান্য কীছু পরিচয়। এই সব নং প্লেট  এর মধ্যে দিল্লী রাজ্যের গাড়ীর নং প্লেটে ভিন্নতা লক্ষ করা যায়। যেটা আপনাদের চোখে একটু আলাদা লাগতে পারে তার মূল কারণ এটাই সেটা হল দিল্লী রাজ্যের  Car No Plate এর মধ্যে এক ধরনের কোড ব্যাবহার করা হয়।আসুন তাহলে সেই বিষয় নীয়ে একটু জানি।

ধরে নেওয়া যাক DL- 4 C AF -4943 এটা দিল্লী রাজ্যের কোন গাড়ীর নং প্লেট। এখানে DLবলতে দিল্লি কে বোঝনো হচ্ছে। এটা হল দিল্লী রাজ্যের রাজ্য কোড । প্রত্যেক  রাজ্যের গাড়ীর রেজিস্ট্রেসনে প্রথমে যেটা থাকে সেটা হল সেই রাজ্যের কোড। যা দেখে গাড়িটি  কোন রাজ্যে রেজিস্ট্রেসন হয়েছে সেটা বোঝা যায়। তার পর যেটা থাকে সেটা হল RTO NO.  যেটা থেকে বোঝা যায় এটা কোন RTO এর অধিনে রেজিস্টার করা হয়েছে। এই নং প্লেটে যে নং টা আছে সেটা হল- 4, এটা হল RTO কোড। এর পরে যে বিশেষ কোডটা দিল্লীর নং প্লেটে ব্যাবহার করা হয়। সেটাই হল Unique., যেটা অন্য রাজ্যের গাড়ীর নং প্লেটে চোখে পড়েনা। এই নং প্লেটটাই Cকোড ব্যাবহার করা হয়েছে। এখনে C-মানে car.এর পরে লেখা AF হল গাড়ীর series  আর 4943 হল গাড়িটির series sl no.আর জেনে রাখা ভাল প্রত্যেক series9999 গাড়ি রেজিস্টার করা হয় এবং প্রত্যেক রাজ্যের রাজধানির RTO কোড ০১ হয়। 

দিল্লী রাজ্যে গাড়ীতে ব্যাবহার করা এমন কয়েকটি কোড নিচে দেওয়া হল। যা থেকে সহজেই আপনারা এই কোড গুলি কী অর্থে ব্যাবহার হয় তা সহজেই বুঝতে পারবেন।

  • S-Bikes
  • C-Car
  • D-Public
  • R- Three Wheeler
  • T-Transport
  • V-Travelers
  • Y-Higher for Transport
  • P-Passengers
  • E-Electric   

♥ আরও পড়ুন> ময়নাতদন্ত/Postmortem

এই ছিল  Car No Plate নীয়ে কীছু তথ্য। যা আপনাদের অনেকের হয়ত জানা ছিল । কিন্তু যারা এই বিষয়ে জানতেন না তাদের মনের মধ্যে থাকা বিভিন্ন  রঙের ব্যাক গ্রাউন্ডে ছাপা নং প্লেট সমন্ধিত সমস্ত কৌতুহলের উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করেছি এই Car No Plate in India content লিখে। আমার এই লেখাটি যদি আপনাদের ভাল লেগে থাকে তাহলে দয়া করে আপনার প্রিয়জনদের মধ্যে শেয়ার ক্রুন।আর আপনারা যদি এরকম আর ও অন্যান্য বিষয়ে জানতে চান তাহলে কমেন্ট সেক্সসনে গিয়ে আপনাদের মতামত জানান। ধন্যবাদ।

a6cc12293fccf681cf15518ca50544bd?s=117&d=mm&r=g
KRISHNA SAHUhttps://www.sonobangla.com
আমি মনে ও প্রাণে একজন বাঙালি,তাই বাঙালি এবং বাংলা ভাষাকে ভালোবাসি। বাংলা ভাষার মধ্যে দিয়ে আপামর বাঙালির মনে বিভিন্ন ঘটনার বিশ্লেষিত প্রেক্ষাপটের বোধগম্য চিত্র ফুটিয়ে তোলায় আমার লেখনীর মূল উদ্দেশ্য।
RELATED ARTICLES

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular