Homeশিক্ষামূলকIndia's No-01 Best Comedy King কপিল শর্মা জীবনী বাংলাতে পড়ুন।

India’s No-01 Best Comedy King কপিল শর্মা জীবনী বাংলাতে পড়ুন।

বন্ধুরা আজকে আলোচনা করব ভারতের বিখ্যাত কৌতুক অভিনেতা কপিল শর্মা জীবনী নিয়ে। আপনারা জানেন কপিল শর্মা শুধু ভারতে নয় বিদেশেও সমান জনপ্রিয়।

তাই যে সমস্ত মানুষ কপিল শর্মা কমেডি লাভার,যারা কপিল শর্মাকে নিয়ে আরো বেশি করে জানতে চায়,তাহলে তাদের কপিল শর্মা জীবনী ভালোভাবে জানার প্রয়োজন আছে।

তাই আজকে কপিল শর্মা জীবনী’তে তুলে ধরব,কপিলের কপিল পুঞ্জ থেকে কপিল শর্মা হয়ে ওঠার পুরো কাহিনী। কীভাবে কপিল পুঞ্জ স্বর্ণ মন্দিরের শহর অমৃতসর থেকে উঠে এল,

টেলিভিশনের ছোটো পর্দায়। বান্ধবীর সাথে ০৮ বছরের প্রেম কীভাবে কপিলের শুভপরিণয়ে পরিণতি পেল।কপিল শর্মার বাবা কীভাবে মারা গেল ? কপিল শর্মা শো থেকে কপিল শর্মা আয় কত করে ?

সাথে বলব কপিল শর্মার সিনেমা ও অভিনয় জীবনের গল্প। কপিল শর্মা জীবনী’র মধ্যে দিয়ে তুলো ধরব কপিলের সমস্ত প্রতিকূলতাকে।

কপিল শর্মা জীবনী বাংলা (Kapil Sharma Biography Bangla)


কপিল শর্মা জীবনী’তে কপিলের জীবনের যে সমস্ত বিষয় গুলি তুলো ধরা হবে, সেগুলি হল –

  • কপিল শর্মার জন্ম ও পরিবার।
  • কপিল শর্মার শিক্ষা জীবন।
  • কপিল শর্মার কর্মজীবন।
  • কপিল শর্মার বিবাহ।
  • কপিল শর্মার প্রাপ্ত পুরুস্কার।
  • কপিল শর্মা’র আয়।
  • কপিল শর্মা’র সিনেমা।

কপিল শর্মার জন্ম ও পরিবার পরিচিতি (Kapil Sharma Family)


Comedy King কপিল শর্মার জন্ম হয় ১৯৮১ সালের ০২ এপ্রিল,ভারতের পাঞ্জাবের অমৃতসরে। কপিলের বাবা জিতেন্দ্র কুমার পুঞ্জ পাঞ্জাব পুলিশের একজন হেড কনস্টেবল ছিলেন।

মা জনক রানী দেবী হলেন একজন সাধারণ গৃহকর্তী। কপিলের বাবা জিতেন্দ্র কুমার ১৯৭৭ সালে ক্যান্সারে আক্রান্ত হয় এবং ২০০৪ সালে দিল্লীর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

শর্মা শো আয় 1

কপিলের বাবা মারা যাওয়ার পর,কপিলের বাবা জিতেন্দ্র পুঞ্জ এর জায়গায় চাকুরী পায় কপিলের বড় দাদা অশোক কুমার শর্মা। যিনি বর্তমানে পাঞ্জাব পুলিশের একজন পুলিশ কনস্টেবল।

কপিলের দাদা অশোক কুমার বিবাহিত,তার স্ত্রীর নাম মুস্কান শর্মা এবং কপিলের ভাইজির নাম কায়না শর্মা। তারা সবাই বর্তমানে অমৃতসরে থাকেন।

এছাড়া কপিলের একটি ছোট বোন আছেন যার নাম পূজা শর্মা। তার বিয়ে হয় ২০০৮ সালে পবন দেবগন এর সঙ্গে। তাই এখন কপিলের বোন পূজা দেবগন নামে পরিচিত।

আজকে জনমুখে যিনি কপিল শর্মা নামে পরিচিত। তার আসল নাম হল কপিল পুঞ্জ। কপিলের পরিবার কপিল কে ডাকনামে টনি বলে ডাকে। আর টিভিতে,কপিল শর্মা শো তে কপিল’কে কপ্পু বলা হয়ে থাকে ।

আরো পড়ুন: রিপাবলিক টিভি নিউজ এডিটর অর্ণব গোস্বামী জীবনী।  

কপিল শর্মার শিক্ষাজীবন (Kapil Sharma Education)


কপিল অমৃতসরের শ্রী রাম আশ্রম সিনিয়র হাই সেকেন্ডারী স্কুল থেকে,দশম শ্রেণী পর্যন্ত পড়াশোনা করেন। এরপর অমৃতসর হিন্দু (খালসা) কলেজ থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত পড়েন।

কপিল ডিগ্রী পড়ার জন্য জলন্ধরে চলে আসেন। জলন্ধরে অপিজয় কলেজ অফ ফাইন আর্টস এ তিনি বিএ পড়ার জন্য ভর্তী হন। এরপর সেখান থেকে তিনি স্নাতক ডিগ্রী সম্পন্ন করেন।

আর আজকে পাঞ্জাবের জলন্ধরের অপিজয় কলেজ অফ ফাইন আর্টস এর প্রাক্তন ছাত্রটি, মানুষকে তার কৌতুক ভরা কথা শুনিয়ে দুনিয়ার মানুষের মুখে হাসিঁর ফোয়ারা ঝরাচ্ছে।

কপিল শর্মার কর্মজীবন (Kapil Sharma Carrier)


কপিল একজন মধ্যবিত্ত পরিবারের ছেলে ছিল। তাই কপিলের কর্মজীবনের শুরুটা মোটেই সুখের ছিল না। কপিলের বাবার পুলিশের চাকুরীতে শুধু পরিবারটাই কোনো রকমে চলত।

কপিলের বাবার মৃত্যুর পর কপিলের বাবার চাকুরী কপিলের দাদা পেয়ে যায়। কিন্তু অমৃতসরের মত শহরে,শুধু মাত্র একজনের রোজগারে পরিবার চালানো কঠিন ছিল।

কপিলের মাথার উপর থেকে দায়িত্বের বোঝা যেন কমছিল না। একদিকে বেকারত্ব অপরদিকে ছোট বোনের উপযুক্ত পাত্রের সঙ্গে বিয়ে দেওয়ার দায়িত্ব বোধ,কপিলকে কুঁড়ে,কুঁড়ে খাচ্ছিল।

শুরুর দিকে কপিল হাত খরচ জোগানোর জন্য একটি PCO তে কাজ করতো। সেখান থেকে কপিল শর্মা আয় করতো ঠিকই,কিন্ত সেই আয় দিয়ে সংসারের খরচ টানা যেতোনা।

কপিল ছোট থেকেই গান গাইতে ভালোবাসত। আত্মীয় স্বজনদের বিয়ে বাড়ীর অনুষ্ঠানে মজাদার জোকস ও গান শুনিয়ে সকলের মনোরঞ্জন করতো। তাই কপিল মুম্বাই পাড়ি জমায় মুলত গান গাওয়ার উদ্দেশ্য নিয়ে।

কিন্তু কে বলতে পারে নিয়তি কাকে কখন কোন জায়গায় নিয়ে যায়। যে ছেলেটা গান গাইব বলে এসেছিল,সে কপিল শর্মা শো এর আজকে ভারত সেরা কৌতুক অভিনেতা।

আরো পড়ুন: রামানুজন জীবনী। 

ছোট পর্দায় কপিল/ টেলিভিশনে কপিল শর্মা শো (Kapil Television Show)


কপিল তার কর্মজীবন শুরু করেন পাঞ্জাবী ক্ষেত্রীয় চ্যানেল Mh1 এর পাঞ্জাবী ভাষার রিয়ালিটি শো হাঁসদে হাঁসাতে রহে দিয়ে।

২০০৭ সালে কপিল অমৃতসরে The Grate Indian Laughter Challenge-03 এর অডিশন দেন। কিন্তু সেখানে তিনি বাদ পড়ে যান।

কিন্তু তিনি হার না মেনে তার এক বন্ধুর পরামর্শে আবার দিল্লীতে গিয়ে অডিশন দেন। দিল্লীতে কপিল The Grate Indian Laughter Challenge-03 এর জন্য নির্বাচিত হন।

এরপর তার কঠিন পরিশ্রমের ফসল হিসাবে তিনি The Grate Indian Laughter Challenge-03 উইনার হিসাবে ঘোষিত হন। এরপর কপিলকে আর পিছু ফিরে তাকাতে হয়নি।

The Grate Indian Laughter Challenge-03 শো কপিলের জীবনে নতুন মোড় নিয়ে আসে। তাকে সাফল্যতার চরম শিখরে পৌঁছে দেয়।

কপিল এই শো’এর বিজেতা হিসাবে ১০ লক্ষ টাকা প্রাইজ মানি পায়। এর পরপরেই কপিল সোনি টিভি পরিচালিত কপিল শর্মা কমেডি সার্কাস সিজন-৬ জিতেন।

শর্মা শো

২০১৩ সালে কপিল কলার্স টিভি’র ঝলক দিখ লাজা -৬ হোস্ট করেন। একইভাবে কপিলের সাফল্যতার পারদ দিন প্রতিদিন বেড়েই চলছিল। এছাড়া তিনি আরো যে শো গুলি হোস্ট করেন সেগুলি হল –

২০১৩-২০১৬ পর্যন্ত কালার্স টিভিতে কপিল শর্মা কমেডি নাইট উইথ কপিল হোস্ট করেন,যা লোকপ্রিয়তার চরম শিখরে পৌঁছে যায়। এই টিভি শো’টি এতটাই জনপ্রিয় ছিল যে,

যে সময় ঐ শো’টি চ্যানেলে প্রসারণ করা হত,সেই সময় কালার্স চ্যানেলটির টিআরপি সবথেকে বেশি থাকত। এই শো’এর জন্য কপিলকে বেশ কিছু পুরুস্কারে পুরস্কৃত করা হয়।

এছাড়া কপিল উস্তাদ কে উস্তাদ,২০০৮ সালে ছোট মিয়া এবং বিগ বস এর বিভিন্ন সিজনে এসে দর্শকদের নজর কাড়েন। আর আজকে সোনি টিভি দ্য কপিল শর্মা শো সবার প্রিয়।

কপিল শর্মার সিনেমা জগতে পদার্পন (Kapil Sharma Film Carrier)


কপিল শর্মা টিভি রিয়ালিটি শো,ছাড়াও কয়েকটি সিনেমায় নিজের চেহারা দেখিয়েছেন। কপিল শর্মা অভিনীত সিনেমা গুলি হল-

শর্মা আয় 1

কপিল তার সিনেমা জীবন শুরু করতে যাচ্ছিলেন যশরাজ ফিল্মের ব্যাঙ্ক চোর সিনেমা দিয়ে। কিন্তু অজ্ঞাত কারণ বসত তা হয়ে ওঠেনা।

পড়ে তিনি সোনি টিভি পরিচালিত কোন বনেগা কোরোর পতি’র ওপেনিং মঞ্চে অমিতাভ বচ্চনের আমন্ত্রণে অতিথী হিসাবে অংশগ্রহণ করেন।

কপিল শর্মা সিনেমা জগতে পা রাখেন আব্বাস মস্তান প্রযোজিত সিনেমা কিস কিসকো প্যার করু সিনেমার মধ্যে দিয়ে। এই সিনেমাটি একটি কমেডি সিনেমা,যেটি ২০১৫ সালে রিলিজ হয়।

এই সিনেমায় কপিল কে আমরা দেখতে পায় শিব রাম কৃষ্ণ পুঞ্জ নামে এক ব্যক্তির চরিত্রে। সিনেমাটির গল্পে কপিলের দুইজন স্ত্রী,আর এই দুই স্ত্রীকে নিয়ে পুরো কমেডি কপিল করেছে।

কপিলের অভিনয় করা সিনেমার সংখ্যা নিহাত হাতে গোনা। কপিলের অপর সিনেমাটি হল ফিরিঙ্গি। সিনেমাটির প্রযোজক এবং অভিনেতা কপিল নিজেই। এই সিনেমাটি ২০১৭ সালে রিলিজ হয়।

আরো পড়ুন: অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় জীবনী। 

কপিল শর্মার প্রাপ্ত পুরুস্কার (Kapil Sharma’s Award List)


কপিল শর্মা তার ১৪ বছরের কমেডি অভিনয় লাইফে বেশ কয়েকটি পুরস্কার নিজের নামে করে নিয়েছেন। কপিল শর্মা প্রাপ্ত পুরস্কার গুলি হল –

২০১২ সালে কপিল সেরা কৌতুক অভিনেতা হিসাবে ITA Award of Best actor Comedy পুরুস্কার পান। এছাড়া ২০১৩ সালে Golden pattle award for Golden movement, Golden pattle award for Best Host,

Big Star most entertaining television reality show এবং অমল পারেকর দ্বারা ২০১৩ সালে CNN-IBN ITA of Best actor Comedy পুরুস্কার লাভ করেন।

২০১৪ সালে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দ্য কপিল শর্মা শো এর মঞ্চ থেকে কপিলকে জনগনের মধ্যে স্বচ্ছতা ও পরিষ্কার পরিছন্নতার প্রতি জনগণকে সজাগ করে,

স্বচ্ছ ভারত মিশন এর প্রতি সচেতনতার প্রচার চালানোর জন্য মিনতি জানায়। কপিল শর্মা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির এই আমন্ত্রণ সাদরে গ্রহণ করেন।

২০১৫ সালে স্বচ্ছ ভারত মিশনের প্রতি তার মহত্বপূর্ণ যোগদানের জন্য,তৎকালীন রাষ্ট্রপতি স্বর্গীয় প্রণব মুখ্যপাধ্যায় কপিল শর্মাকে রাস্ট্রপতি ভবনে আমন্ত্রণ জানিয়ে সাধুবাদ জানায়।

এছাড়া ২০১৪ সালে কপিল আরো অন্যান্য যে সমস্ত পুরুস্কার গুলি পেয়েছেন সেগুলি হল- IT King of Comedy award, Big star most entertaining Host, Indian Teli award for Best Anchor.

২০১৪ সালে কপিল শর্মাকে দিল্লী লোকসভা ভোটে, দিল্লীর নির্বাচন কমিশন ব্র্যান্ড এম্বাস্যাটার হিসাবে নিয়োগ করেন।

কপিল শর্মা আয় (Net Worth of Kapil Sharma)


ছোট পর্দার কৌতুক অভিনেতা কপিল শর্মা’র আয় বড় বড় সেলিব্রেটি ও ফ্লিম এক্টরদের তুলনায় কোনো অংশে কম না।

কপিল শর্মা’র আয় বার্ষিক ৩০০ কোটির কাছাকাছি। কপিল শর্মা তার একটি সিনেমায় অভনয়ের জন্য ৬-৭ কোটি টাকা পারিশ্রমিক নিয়ে থাকেন।

শর্মা শো 1

এছাড়া কোনো কিছুতে ব্র্যান্ড প্রমোশানের জন্য, এডভ্যাটরিজমেন্ট ফী বাবদ ১.৫ কোটি টাকা নিয়ে থাকেন। আমরা সোনি টিভি’তে নিয়মিত যে দ্য কপিল শর্মা শো দেখি,

তার জন্য কপিল শর্মা পার এপিসোড ৭৫-৮০ লক্ষ টাকা চার্জ করে থাকেন। এছাড়াও কপিলের আরও অন্যান্য সোর্স থেকে বাৎসরিক ১৭০ কোটির কাছাকাছি কপিল শর্মা আয় করে থাকেন।

কপিল শর্মার প্রেম ও বিবাহ (Kapil Sharma Love Affairs)


কপিল শর্মা’র জীবনী’তে প্রেম প্রসঙ্গ টেনে আনলে দেখতে পাওয়া যায় কপিল কলেজ জীবন থেকে গিন্নি চতুর্থ নামে একটি মেয়ের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়ান।

কপিল জলন্ধর শহরে স্নাতক পড়তে গিয়ে প্রেমের সম্পর্কে জড়ান। প্রায় ১০ বছর যাবৎ কপিল ও গিন্নি দুজনে জুটিয়ে প্রেম করেন।

শর্মা জীবনী ।

গিন্নি ও কপিলের প্রেমের সম্পর্কের কথা দুই পরিবার প্রথম থেকেই জানত। গিন্নি এবং কপিলের পরিবারের মধ্যে দুইজনের আসা যাওয়া ছিল।

কিন্তু এতো দিন প্রেম করেও তাদের বিয়ে পর্যন্ত জল গড়াচ্ছিল না। কারন হিসাবে ভাবনীত ওরফে গিন্নি কপিলের সামনে বিয়ে করার জন্য দুটি শর্ত রাখে।

প্রথম শর্ত হল গিন্নি কে বিয়ে করতে হলে কপিলকে পুরোপুরি ভাবে মদ্যপান বন্ধ করতে হবে। কপিল কে দেওয়া গিন্নি’র দ্বিতীয় শর্ত হল নিঝঞ্ঝাল এফেয়ার ফ্রী জীবন যাপন।

২০১৮ সালে ১২ ডিসেম্বর কপিল গিন্নি’র শর্ত মেনে পাঞ্জাবের জলন্ধরে,গিন্নি’র বাপের বাড়ি থেকে বিবাহ সম্পন্ন করেন। বর্তমানে তাদের একটি কন্যা সন্তান আছে,কপিলের মেয়ের নাম আনেরা শর্মা।

কপিল শর্মা জীবনী’তে কপিলের জীবনের কিছু রুচিপূর্ণ ঘটনা


কপিলের প্রারম্ভিক জীবন খুব স্বচ্ছল ছিলনা না। কপিল কোনোদিন ভাবতেই পারেনি তার জীবনের মোড় তাকে টেলিভিশনের পর্দায় নিয়ে আসবে।

যদিও কপিলের ছোট বেলা থেকে গান বাজনার প্রতি আসক্তি ছিল, কিন্তু সেভাবে সে কোনোদিন ভেবে উঠতে পারেনি সে একদিন মস্ত বড় হবে।

কপিল জীবনের শুরুতে টাকা রোজগারের জন্যে PCO তে কাজের পাশাপাশি কোল্ড ড্রিংক পর্যন্ত বিক্রি করেছেন। কপিলের বাবা মারা যাওয়ার পর,

পারিবারিকক সমস্ত রকম দায়দায়িত্ব,কপিল নিজের হাতে নিভিয়েছেন। ছোট বোনের বিবাহ থেকে শুরু করে নতুন ঘর নির্মাণ সমস্ত দায়িত্ব কপিল পালন করেছেন।

জীবনের শুরুতে কপিল নানা রিয়ালিটি শো এবং ইন্টারভিউ এ বাদ পড়ে যাওয়ার পরেও,কপিল কিন্তু হার মেনে নেয়নি। কপিল নিজের পরিশ্রম দ্বারা নিজের জায়গা মুম্বাইয়ে পাকা করে নিয়েছে।

কপিল শর্মার কীছু পছন্দ ও অপছন্দ


কপিল শর্মা একজন লোকপ্রিয় অভিনেতা। তাই কপিলের পছন্দ ও অপছন্দের বিষয় গুলি সবার জানতে ইচ্ছে করে।

কপিলের পছন্দের রং হল নীল। তিনি ভাতের সঙ্গে রাজমা খেতে খুব ভালোবাসেন। তার পছন্দের জায়গা হল লণ্ডন। তার প্রিয় গাড়ি হল মার্সেডিজ।

তিনি সাধারণত জিন্স এবং ট্রি-শার্ট পড়তে পছন্দ করেন। তার পছন্দের খেলা হল ক্রিকেট। ক্রিকেটার হিসাবে যুবরাজ সিং তার প্রিয় কির্কেকেটর।

তার পছন্দের নায়ক হল অক্ষয় কুমার এবং পছন্দের অভিনেত্রী হলেন দীপিকা পাডুকোন। আর তার পছন্দের গায়ক হলেন গুরুদাস মান।

কপিল শর্মার ডিলাক্স জীবন যাপন ( Kapil Sharma Deluxfull life style)


বাংলায় একটি প্রবচন আছে যার যেমন আয় তার তেমন ব্যায়। কপিল শর্মার আয়ের নিরিখে ব্যায়ের পরিমান নিহাত কম নয়।

কপিল তার লাক্সারি জীবন যাপনের জন্য মোটা রকমের টাকা খরচ করে থাকেন। কপিল মুম্বাইয়ে যে বাংলোটিতে থাকেন, সেই বাংলোটির মূল্য প্রায় ৯ কোটি টাকার মত।

শর্মা জীবনী 2

এছাড়া কপিলের  স্টকে দেশি বিদেশী বিভিন্ন লাক্সারী গাড়ি আছে। যেগুলির এক একটির মূল্য ৩ কোটির কাছাকাছি। কপিলের কাছে মার্সেডিজ বেঞ্চ,ভলভো এক্সসি-৬০ এর মত ব্র্যান্ডেড গাড়ি রয়েছে।

কপিল শর্মা জীবনী’তে কপিল কে ঘিরে কিছু বিবাদ (Controversy)


হাসি খুশি এই কৌতুক অভিনেতা বলিউডে এখন পর্যন্ত সব থেকে কম বাদ বিবাদে নিজেকে জড়িয়েছেন। তাই কপিলকে নিয়ে খবরের কাগজে সেরকম চর্চা শোনা যায় না।

কপিল শর্মা কমেডি শো ও সুনীল গ্রাবার বিবাদ-

টেলিভিশনের পর্দার বাইরে কপিল এবং সুনীল একজন খুব ভালো বন্ধু ছিলেন। কিন্তু দুই জনের মধ্যে এমন কিছু কথা কাটাকাটি হয়। যা পরে ঝগড়ায় পরিবর্তন হয়ে যায়।

বিভিন্ন সংবাদ এই বিবাদ কে টাকা পয়সা সংক্রান্ত সমস্যা বলে খবরের কাগজে হেড লাইনে বার করলেও,কপিল তা পুরোপুরি অস্বীকার করেন।

কপিল রাগের মাথায় সুনীলকে কিছু অপশব্দ বলেন। যেগুলি সুনীলের খারাপ লাগে। এর জন্য সুনীলের কাছে কপিল পরে অবশ্য ক্ষমা চায়।

কপিল শর্মা টুইটার বিবাদ –

বেশ কয়েক বছর আগে কপিল মহারাষ্ট্র সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ হিসাবে একটা টুইট করেন। এই টুইট করা হয়েছিল মূলত মহারাষ্ট্রের মুম্বাই মিউনিসিপালিটি কর্পোরেশনের বিরুদ্ধে।

মুম্বাই মিউনিসিপালিটি কর্পোরেশন,কপিলের কাছ থেকে ৫ লক্ষ টাকা ঘুষ চেয়েছিল। তিনি তার প্রতিবাদে মহারাষ্ট্র সরকারের বিরুদ্ধে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ট্যাগ করে একটি টুইট করেন।

টুইটে তিনি প্রধানমন্ত্রীকে বলেন,মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমি সময়ের আগে আমার সমস্ত রকম ট্যাক্স সরকারকে দিয়ে থাকি। আপনি বলেছিলেন আচ্ছে দিন আসবে। তাহলে এই হল আপনার আচ্ছে দিন।

যেখানে সময়ের আগে একজন দায়িত্বশীল নাগরিক ট্যাক্স ভরবে। আবার তাকে ঘুষ হিসাবে আলাদা করে ৫ লক্ষ টাকা দিতে হবে।

পরিশিষ্ট


কপিল শর্মা জীবনী অধ্যয়নের মাধ্যমে আমরা আপনাদের সামনে কপিলের জীবনের গুরুত্ব পূর্ণ যে ঘটনা গুলি জানানোর প্রয়োজন ছিল তার বেশির ভাগ জানানোর চেষ্টা করেছি।

কপিল শর্মা জীবনী’তে কপিলকে আমরা সাধারণত,কপিল শর্মা শো ও অন্যান্য জায়গায় হাঁসতে এবং হাঁসাতে  দেখে থাকি। কিন্তু আসল জীবনে কপিল হলেন একজন আবেগ প্রবন মানুষ।

কপিল শর্মা শো এবং কপিল কে আপনারা সবাই পছন্দ করেন ঠিকই! কিন্তু জানিনা আমাদের কলমে লেখা কপিল শর্মা জীবনী আপনাদের কতটা মন প্রসূত হবে।

যাই হোক প্রতিবারের মত এবার এসেছে,আজকের আলোচনা থেকে বিদায় নেওয়ার পালা। তবুও প্রতিবারের মত এবারও আপনাদের কাছে আমাদের অনুরোধ,

লেখার মধ্যে ভুল ত্রূটি থাকলে মার্জনা করে,ভুল গুলো ধরিয়ে দেবেন। আর আমাদের লেখা কপিল শর্মা জীবনী যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে,

তাহলে শেয়ার এবং কমেন্ট করে আমাদের মনোবল বাড়াবেন। এতক্ষন আপনার মূল্যবান সময় শোনোবাংলা’র পেজে ব্যায় করার জন্য, অনেক অনেক ধন্যবাদ।

 

a6cc12293fccf681cf15518ca50544bd?s=117&d=mm&r=g
KRISHNA SAHUhttps://www.sonobangla.com
আমি মনে ও প্রাণে একজন বাঙালি,তাই বাঙালি এবং বাংলা ভাষাকে ভালোবাসি। বাংলা ভাষার মধ্যে দিয়ে আপামর বাঙালির মনে বিভিন্ন ঘটনার বিশ্লেষিত প্রেক্ষাপটের বোধগম্য চিত্র ফুটিয়ে তোলায় আমার লেখনীর মূল উদ্দেশ্য।
RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular